শুক্রবার   ১৮ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ২ ১৪২৬   ১৮ সফর ১৪৪১

আজকের পটুয়াখালী
ব্রেকিং:
৫৬ লাখ টাকার সিগারেটসহ চোরাকারবারি আটক ফটিকছড়িতে ভুক্তভোগীর ভাই সেজে ঘুষখোর ভূমি কর্মকর্তাকে ধরলেন ডিসি আবরার হত্যা নিয়ে রাজনীতি করে কোনো লাভ হবে না: হানিফ নদী দখলের খবর দিলেই মিলবে পুরস্কার মুসা বিন শমসেরের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা নিয়মের বাইরে না যেতে ইউজিসিকে নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ফুটবলে বাংলাদেশের সম্ভাবনা দেখছেন ফিফা সভাপতি শেখ রাসেলের ৫৫তম জন্মদিনে আ. লীগের কর্মসূচি শেখ রাসেলের ৫৫তম জন্মদিনে ছাত্রলীগের কর্মসূচি ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীকে জার্সি উপহার দিলেন ফিফা সভাপতি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ফিফা প্রেসিডেন্টের সৌজন্য সাক্ষাৎ বাউল সম্রাট লালন ফকিরের তিরোধান দিবস আজ একদিন পিছিয়ে আজ হেমন্তের শুরু যে কারণে প্রেমিক বা প্রেমিকা হিসাবে সাংবাদিকরাই সেরা! বাংলাদেশে কাজ করার অনেক জায়গা আছে: ফিফা সভাপতি রাজধানীতে `ফইন্নী গ্রুপের` ৬ সদস্য আটক স্পিকারের সঙ্গে সার্বিয়ার উপ-প্রধানমন্ত্রীর সৌজন্য সাক্ষাৎ ক্লাসিকোর ভেন্যু পাল্টানোর অনুরোধ লা লিগার উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ১৮ কাউন্সিলর নজরদারিতে যেমন ছিল নবিজির জীবনের শেষ মুহূর্তটি
২১৪

আয়রন ব্রীজ ভেঙ্গে পড়ায় চলাচলে দুর্ভোগ

প্রকাশিত: ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯  

পটুয়াখালী প্রতিনিধি ঃ
পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ উপজেলার হুরমুইবুনিয়া খালের ওপর একমাত্র আয়রন ব্রীজটির সিøপারগুলো ভেঙ্গে পড়ায় চলাচলে দুর্ভোগে পড়েছে এলাকাবাসী। ব্রীজটি গত আট বছর আগে ভেঙ্গে দক্ষিন দিকে হেলে পড়লে স্থানীয়রা গাছের গুড়িঁ দিয়ে ঠেকনা দিয়ে চলাচল করছেন। 
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,মির্জাগঞ্জ উপজেলার আমড়াগাছিয়া ইউনিয়নের নির্মানাধীন দক্ষিন ঝাটিবুনিয়া হইতে তাজেম আলী বাড়ির সড়কের ছৈলাবুনিয়া গ্রামের সিকদার বাড়ির সংলগ্ন হুরমুইবুনিয়া খালের ওপর আয়রন ব্রীজটি কয়েক বছর পূর্বে ভেঙ্গে পড়ে। ভেঙ্গে যাওয়ার পরে ব্রীজটি মেরামত করা হলেও কয়েকদিনের মধ্যে একই অবস্থা দেখা দেয়। 
হুরমুইবুনিয়া খালের ওপর ভাঙ্গা ব্রীজটি দিয়ে ছৈলাবুনিয়া গ্রামসহ প্রায় ৫ গ্রামের লোকজন চলাচল করে থাকে। এ নড়বড়ে ব্রীজটি দিয়ে প্রতিদিন স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রী, কৃষক, ব্যবসায়ী, চাকরীজীবি, হাট-বাজারের লোকজন পারপার হচ্ছেন। বিশেষ করে সুবিদখালী মহিলা ও সুবিদখালী সরকারি কলেজ, মোল্লাবাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়,ঝাটিবুনিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়,সুবিদখালী বাজারসহ বিভিন্ন গ্রামের লোকজন এবং  ছাত্র-ছাত্রীরা নড়বড়ে ব্রীজদিয়ে পারাপার হয়ে স্কুল-কলেজে যাচ্ছেন। এলাকার লোকজন চলাচলে সুবিধার জন্য গাছ দিয়ে চলাচল করতে গিয়ে ভোগান্তিতে পড়তে হয় রোগী, শিশু ও বৃদ্ধাদের। 
স্থানীয় সাবেক ইউপি সদস্য মোতালেব, নয়া মিয়া সিকদার ও আবদুল কাদের বলেন, এ এলাকার একমাত্র নড়বড়ে ব্রীজ দিয়ে দিয়ে প্রতিদিন শত শত মানুষ পার হয়ে বিভিন্ন এলাকায় যাতায়াত করছে। পথচারীদেরকে ব্রীজটি পার হতে গিয়েও হিমসিম খেতে হচ্ছে। ব্রীজটি নির্মান করা হলে এ এলাকার মানুষের দুর্ভোগ লাঘবসহ সকল ক্ষেত্রে উন্নয়ন হবে। উপজেলার মধ্যে সবচেয়ে উন্নয়নের দিক দিয়ে পিছিয়ে ছিলো ছৈলাবুনিয়া গ্রামটি। দক্ষিন ঝাটিবুনিয়া হইতে তাজেম আলী বাড়ি পর্যন্ত সড়ক নির্মানের কাজ চলমান থাকায় এ এলাকার উন্নয়ন আরেকধাপ এগিয়ে গেছে। তবে হুরমুইবুনিয়া খালের ওপর নড়বড়ে সেতু দিয়ে বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা পারাপার হতে গিয়ে প্রায়ই দুর্ঘটনায় শিকার হচ্ছে। ব্রীজটির স্লিপার ও লোহার আ্যঙ্গেলগুলো নতুন ভাবে স্থাপন করা হলে পথচারীদের চলাচলে সুবিধা হবে। 
উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান খান মো.আবু বকর সিদ্দিকী বলেন, আমড়াগাছিয়া ইউনিয়নের ছৈলাবুনিয়া গ্রামের হুরমুইবুনিয়া খালের ওপর ব্রীজটি ঝুকিঁপূর্ন। অনেক সময়ে পথচারীরা পড়ে দুর্ঘটনার শিকার হয়। তবে অতি শীঘ্রই ব্রীজটি মেরামতের ব্যবস্থা করা হবে।