শনিবার   ২৩ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৮ ১৪২৬   ২৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

আজকের পটুয়াখালী
ব্রেকিং:
সরকার আলেমদের সঙ্গে নিয়ে দেশের উন্নয়ন করতে চায়: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী নরসিংদীর এমপি বুবলীকে আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার চালের বাজার অস্থিতিশীল করলে কাউকে ছাড় নয়: খাদ্যমন্ত্রী ভারত মুক্তিযুদ্ধের সময় পাশে ছিল তা ভুলিনি: প্রধানমন্ত্রী চিকিৎসকদের নৈতিক শিক্ষা খুবই প্রয়োজন: পরিকল্পনামন্ত্রী সামাজিক মাধ্যমে গুজব বন্ধে বিধিমালা হচ্ছে- তথ্যমন্ত্রী শুক্রবারের মধ্যে যান চলাচল স্বাভাবিক হবে: কাদের ঘণ্টা বাজিয়ে খেলার উদ্বোধন করলেন শেখ হাসিনা একুশ শতকের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সশস্ত্র বাহিনীকে গড়ে তোলা হবে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে সশস্ত্র বাহিনীকে কাজ করার আহ্বান সড়ক পরিবহন আইনের অসঙ্গতি দূর করা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ‘বিএনপি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গুজব সৃষ্টি করছে’- কাদের অনার্স ২য় বর্ষের ২৫ নভেম্বরের পরীক্ষা স্থগিত কোন অপপ্রচারে কান না দিতে জনগণের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান ‘গোলাপি’ যাত্রা রাঙ্গাতে কাল মাঠে নামছে বাংলাদেশ সারাবিশ্বে বাংলাদেশ এখন সম্মানের দেশ: প্রধানমন্ত্রী সশস্ত্র বাহিনী দিবসের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী আজ সন্ধ্যায় আ. লীগের অভ্যর্থনা উপকমিটির সভা ইউনেস্কোর সাধারণ অধিবেশনে অংশ নিলেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী শিখা অনির্বাণে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা
২৬

ইমিগ্রেশন: চোখের আইরিশের তথ্য দেবে ইসি

প্রকাশিত: ২২ অক্টোবর ২০১৯  

 

দেশের বিমানবন্দরগুলোতে ব্যক্তির পরিচয় নিশ্চিত করতে আরও একধাপ সহায়তা বাড়াবে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এক্ষেত্রে জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) তথ্যভাণ্ডারে সংরক্ষিত নাগরিকের চোখের আইরিশের তথ্য দেওয়া হবে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষকে।

ইসি কর্মকর্তারা বলছেন, আগে যারা ভোটার হয়েছেন, তারা স্মার্টকার্ড নেওয়ার সময় চোখের আইরিশের প্রতিচ্ছবি দিচ্ছে। আর বর্তমানে যারা ভোটার হচ্ছেন সবার চোখের আইরিশের প্রতিচ্ছবি নেওয়া হচ্ছে। দশ আঙুলের ছাপ তো রয়েছেই।

অনেকেরই আঙুলের ছাপ নষ্ট হয়ে যায়। তাই চোখের আইরিশ নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে। এয়ারপোর্টে কোনো অপরাধী ইমিগ্রেশনে গিয়ে আর ফাঁকি দিতে পারবে না। তবে এজন্য বিমানবন্দরগুলোতেও আইরিশ রিড করতে পারার মতো যন্ত্রও বসাতে হবে।

বর্তমানে ইমিগ্রেশনে পাসপোর্টে থাকা তথ্য মিলিয়ে দেখা ছাড়াও ফটো তুলে রাখেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

এ বিষয়ে ইসির এনআইডি শাখা মহাপরিচাল ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. সাইদুল ইসলাম  বলেন, আমরা জাতীয় নিরাপত্তায় ব্যক্তির পরিচয় যাচাইয়ে কোনো ছাড় দিচ্ছি না। সব ধরনের প্রযুক্তির ব্যবহার করছি। নাগরিকের চোখের আইরিশও নিচ্ছি। এগুলো ভবিষ্যতে আমরা এয়ারপোর্টে দেবো। সেখানে সহজেই তারা জেনে নিতে পারবেন ব্যক্তির পরিচয়।

তিনি বলেন, বিষয়টি নিয়ে এখনও কোনো আলোচনা তাদের সঙ্গে হয়নি। তবে আমরা সেভাবেই প্রস্তুতি নিচ্ছি। তারা চাইলে যেন দিতে পারি।

ইসির তথ্য ভাণ্ডার থেকে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, গোয়েন্দা সংস্থা, ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান, মোবাইল অপারেটরসহ সরকারি-বেসরকারি শতাধিক প্রতিষ্ঠান সেবা নিচ্ছে। এছাড়া ব্যক্তিগতভাবেও আবেদন করে অনেকে অন্যের পরিচয় যাচাই করে নিচ্ছেন। তবে বর্তমানে প্রতিষ্ঠানগুলো আঙুলের ছাপের মাধ্যমে পরিচয় জেনে নিতে পারছেন। কারও আঙুলের ছাপ মুছে গেলে সে ব্যক্তির পরিচয় নিশ্চিত করা সময়সাপেক্ষ হয়ে যাচ্ছে। এজন্যই দু’হাতের দশ আঙুলের ছাপ ও চোখের আইরিশের প্রতিচ্ছবিও সংরক্ষণ করছে ইসি। আগে কেবল দুই হাতের চার আঙুলের ছাপ নেওয়া হতো।
২০০৮ সালের নবম সংসদ নির্বাচনের আগে ছবিযুক্ত ভোটার তালিকা কার্যক্রম করে এটিএম শামসুল হুদার নেতৃত্বাধীন তৎকালীন কমিশন। পরবর্তীতে ওই তালিকার ভিত্তিতে জাতীয় তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলে নাগরিকদের এনআইডি সরবরাহ করে ইসি।

এনআইডিকে বিশ্বমানের করতে হুদা কমিশন ২০১১ সালে বিশ্বব্যাংকের সহযোগিতায় হাতে নেয় স্মার্ট এনআইডির প্রকল্প। যার মাধ্যমেই বর্তমান কমিশন দশ আঙুলের ছাপ ও চোখের আইরিশ নিচ্ছে। এছাড়া এই তথ্যভাণ্ডারে আছে ১১ লাখ রোহিঙ্গা নাগরিকের তথ্যও। চাইলেই এরা আর ভোটার তালিকায় যুক্ত হতে বা এনআইডি সংগ্রহ করতে পারবে না।

বর্তমানে দেশে ভোটার সংখ্যা ১০ কোটি ৪২ লাখ। চলমান হালনাগাদ শেষে ভোটার সংখ্যা আরও বাড়বে।

এই বিভাগের আরো খবর