বৃহস্পতিবার   ২১ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৬ ১৪২৬   ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

আজকের পটুয়াখালী
ব্রেকিং:
সারাদেশের পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন লিখতে হবে স্পষ্ট অক্ষরে: হাইকোর্ট আজ সশস্ত্র বাহিনী দিবস শাহজালালে পৌঁছেছে পাকিস্তানের ৮২ টন পেঁয়াজ ক্রিকেটের সঙ্গে টেনিসও এগিয়ে যাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী পটুয়াখালীতে বাস চলাচল শুরু রিফাত হত্যা : চার্জ গঠন ২৮ নভেম্বর র‌্যাব-৮ এর অভিযানে শীর্ষ সন্ত্রাসী গ্রেফতার ৭ ডিসেম্বর বিচারবিভাগীয় সম্মেলনে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী বরিশাল বোর্ডে এসএসসিতে বৃত্তি পাচ্ছেন ১৪১৭ শিক্ষার্থী কবি সুফিয়া কামালের মৃত্যুবার্ষিকী আজ বরিশাল বোর্ডে এসএসসির ফরম পূরণে সময় বাড়লো জাতীয় অর্থনীতিতে নারীর অবদান সবচেয়ে বেশি: পলক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ট্রাক মালিকদের ফের বৈঠক আজ চক্রান্তকারীদের আইনের আওতায় আনা হবে: ওবায়দুল কাদের দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী লবণের দাম বাড়ালে জেল-জরিমানা : বাণিজ্যমন্ত্রী লবণ নিয়ে গুজবে কান দিবেন না: শিল্প মন্ত্রণালয় গলাচিপায় যুবলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত ২০২১ সালের মধ্যে ১০০০ উদ্যোক্তা তৈরিতে সহায়তা দেবে সরকার
৫৪৬

এরশাদকে দেখতে না যাওয়ায় সমালোচনায় বিদ্ধ মওদুদ আহমেদ!

প্রকাশিত: ৯ জুলাই ২০১৯  

জীবন-মৃত্যুর সাথে লড়াই করতে থাকা জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদকে একটি বারের জন্যও দেখতে যাননি সাবেক জাতীয় পার্টি নেতা ও বর্তমান বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ।

এরশাদের বদান্যতায় মন্ত্রিত্বের স্বাদ পেলেও সেই এরশাদের বিপদে পাশে নেই মওদুদ। দল ভাঙ্গার কারিগর খ্যাত মওদুদ আহমেদের এমন অকৃতজ্ঞতা এবং অসৌজন্যতায় কঠোর সমালোচনায় মেতেছেন রাজনীতিবিদরা।

ব্যারিস্টার মওদুদের এমন অসৌজন্যতার বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে বিএনপি ত্যাগ করে বিকল্প ধারায় যোগদানকারী নেতা শমসের মুবিন চৌধুরী বলেন, এরশাদের কারণে রাজনীতি করার সুযোগ পেয়েছেন মওদুদ। এরশাদের শাসনামলে সব রকমের রাষ্ট্রীয় সুযোগ-সুবিধা নিয়েছেন তিনি। বলা যায় জাতীয় পার্টির সাথে জড়ানোয় রাজনৈতিক ক্যারিয়ার উজ্জ্বল হয়েছে মওদুদের।

তিনি আরো বলেন, আবার আঁতে ঘা লাগায় এবং এরশাদের পতন নিশ্চিত জেনেই সুবিধা বাড়িয়ে নিতে বিএনপিতে যোগদান করেন বর্ণচোরা এই নেতা। অথচ আজকে এরশাদের এমন বিপদে তার পাশে নেই তিনি। মওদুদের মতো অকৃতজ্ঞ ও বেইমান নেতা দেশের রাজনীতিতে বিরল। সামান্যতম কৃতজ্ঞতাবোধ এবং সৌজন্যবোধ থাকলে মওদুদ লোক-লজ্জা ভুলে তার রাজনৈতিক গুরুকে দেখতে যেতেন। মওদুদ আসলে সুযোগ সন্ধানী নেতা। লাভ-লোকসান হিসাব করেই হয়তো মওদুদ এরশাদকে দেখতে যাননি।

মওদুদের বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে জাতীয় পার্টির একজন প্রেসিডিয়াম সদস্য বলেন, মওদুদ আহমেদের উচিত ছিল প্রথম দিনই এরশাদ স্যারকে দেখতে আসা। কারণ এরশাদের কারণেই আজকে রাজনীতিতে পরিচিতি পেয়েছেন তিনি। অবশ্য তার কারণেই জাতীয় পার্টিতে ভাঙ্গন তরান্বিত হয়। এরশাদের দুমুখো নীতির কারণে জাতীয় পার্টির অনেক ক্ষতি হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, মওদুদ ভালো-মন্দ যাই করুন তাতে আমাদের দুঃখ নেই। কিন্তু একজন মানুষ হিসেবে বিপদগ্রস্ত একজন মানুষের পাশে দাঁড়ানোটা মনুষ্যত্বের কাজ। মওদুদ আহমেদের মধ্যে নূন্যতম মনুষত্ববোধ ও মানবিক বোধ থাকলে তিনি এরশাদের খোঁজ নিতেন। কিন্তু তিনি তা করেননি। মওদুদ আহমেদের মতো অকৃতজ্ঞ ও ধান্দাবাজ নেতা যে এক সময় জাতীয় পার্টি করতেন, সেটি ভাবলেও কষ্ট হচ্ছে আমাদের।

এই বিভাগের আরো খবর