বুধবার   ২৩ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৭ ১৪২৬   ২৩ সফর ১৪৪১

আজকের পটুয়াখালী
ব্রেকিং:
একজন মায়ের গল্প ইমিগ্রেশন: চোখের আইরিশের তথ্য দেবে ইসি তরুণদের দেখে আমি গর্বিত: সজীব ওয়াজেদ তিন হাজার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির ঘোষণা বুধবার দলকে এগিয়ে নিতে কর্মীদেরকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে-এমপি মুহিব বাংলাদেশকে উন্নয়নের মডেল করেছে স্থিতিশীল সরকার- আইন মন্ত্রী সেতু বিভাগ, পাট ও পিএসসিতে নতুন সচিব ঘুষের টাকাসহ দুদকের হাতে রাজস্ব কর্মকর্তা আটক আবারও ১৪ ভারতীয় জেলে আটক সাতটি অভ্যাস মানুষের ধ্বংস ডেকে আনে দেশজুড়ে তরুণদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে: সজীব ওয়াজেদ চিফ হুইপের সঙ্গে ত্রিপুরা কংগ্রেসের চিফ হুইপের সাক্ষাৎ বাড়তি সুযোগের আশায় ভাসানচর যেতে রাজি রোহিঙ্গারা সরকার গঠনে ব্যর্থ হয়ে শেষমেশ পথ ছাড়লেন নেতানিয়াহু একনেকে ৫ প্রকল্পের অনুমোদন, ব্যয় হবে ৪৬৩৬ কোটি কানাডায় আবারও জয়ী জাস্টিন ট্রুডো নকশা না মেনে গাড়ি নামালে কঠোর ব্যবস্থা: প্রধানমন্ত্রী গতিশীল নেতৃত্বের জন্য প্রধানমন্ত্রী এখন বিশ্ব নেতা- কাদের বছরের প্রতিটি দিনই সড়ক নিরাপদ রাখতে হবে: পলক অস্ত্র মামলায় কারাগারে পাগলা মিজান
৩৮

পদ না পেয়ে বিএনপিপন্থী আইনজীবীর চেম্বারে দলীয় কর্মীদের হামলা!

প্রকাশিত: ১০ অক্টোবর ২০১৯  

ক্ষমতায় না থেকেও পদ-পদবির লোভে সংঘাত-সংঘর্ষের ঘটনা বিএনপিতে নতুন নয়। যোগ্যতা ও জ্যেষ্ঠতা না থাকা সত্ত্বেও ইচ্ছানুযায়ী পদ না পাওয়া নিয়ে বিএনপির বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনে সংঘাতের ঘটনা যেন প্রতিদিনের ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে।

দলীয় কোন্দল ও পদ বাণিজ্যের জেরে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি ভবনে বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামালের চেম্বার ভাঙচুর করেছে বিএনপি নেতা-কর্মীরা। জানা গেছে, বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের সংগঠন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে এই ঘটনা ঘটে। মূলত পদবঞ্চিত আইনজীবীদের উসকানিতে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

বিভিন্ন তথ্যসূত্রে জানা গেছে, সোমবার (৭ অক্টোবর) বিকেলে ওই ভবনের নিচতলায় থাকা চেম্বারটিতে (১১০ নম্বর কক্ষ) ভাংচুর করা হয়। তবে এসময় ব্যারিস্টার কায়সার কামাল চেম্বারে ছিলেন না।

এর আগে গত ৩ অক্টোবর সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান খন্দকার মাহবুব হোসেনকে আহ্বায়ক এবং সাবেক ছাত্রনেতা ও আইনজীবী ফজলুর রহমানকে সদস্য সচিব করে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের ১৭৯ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করা হয়। এই কমিটি ঘোষণার পর থেকেই পদবঞ্চিতরা সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির ভবনে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন। সোমবার ব্যারিস্টার কায়সার কামালের চেম্বার ভাঙচুরের আগেও পদবঞ্চিতদের মিছিল হয়।

ভাংচুরের বিষয়ে জানতে চাইলে ব্যারিস্টার কায়সার কামাল বলেন, অযোগ্য, হাইব্রিড ও সুযোগ সন্ধানীরা পদ না পাওয়ায় উদ্দেশ্যমূলকভাবে আমার চেম্বারে হামলা করেছে। তাদের উদ্দেশ্য ছিলো আমার ক্ষতি করা। সত্যি বলতে, অযোগ্য ও পদ লোভী নেতাদের কারণে সব জায়গায় বিএনপির বদনাম হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, কারও বিরুদ্ধে যদি শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ প্রমাণিত হয় তাহলে দলীয়ভাবে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়া হবে। আর যোগ্য কেউ পদবঞ্চিত হয়ে থাকলে তাদের হতাশ হওয়ার কিছু নেই। কমিটিতে থাকার সুযোগ শেষ হয়ে যায়নি। তাই বলে বিশৃঙ্খলা সহ্য করা হবে না।

এই বিভাগের আরো খবর