• শনিবার   ১৭ এপ্রিল ২০২১ ||

  • বৈশাখ ৩ ১৪২৮

  • || ০৪ রমজান ১৪৪২

আজকের পটুয়াখালী
ব্রেকিং:
দেশে করোনায় মৃত্যু ১০ হাজার ছাড়াল সরবরাহ কম থাকায় চালের দাম বেশি : অর্থমন্ত্রী উদোর পিন্ডি বুধোর ঘাড়ে চাপানোর অপচেষ্টা করেছে বিএনপি: কাদের একদিনে করোনায় ৬৯ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৬০২৮ নারায়ণগঞ্জে সহিংসতার ঘটনায় জামায়াত নেতা গ্রেফতার অবকাঠামো নির্মাণকাজ লকডাউনের আওতামুক্ত থাকবে: কাদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলমান উন্নয়ন কাজ অব্যাহত রাখুন: তাজুল ইসলাম করোনায় একদিনে রেকর্ড ৮৩ জনের মৃত্যু হামলাকারীদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনা হবে: রেলমন্ত্রী বিশ্বে শান্তি নিশ্চিত করাটাই চ্যালেঞ্জ: প্রধানমন্ত্রী ২৪ ঘণ্টায় বরিশালে করোনা শনাক্ত ১১৫ বাজেটে স্বাস্থ্য ও কৃষি খাত গুরুত্ব পাবে: অর্থমন্ত্রী ২৪ ঘণ্টায় আরো ৭৮ জনের মৃত্যু আ. লীগের নিজস্ব ইতিহাস তৈরির কারখানা নেই: কাদের লকডাউনে কোথাও উন্নয়ন কাজ বন্ধ থাকবে না: পরিকল্পনামন্ত্রী ফেসবুকে ‘উসকানিমূলক’ স্ট্যাটাস: গ্রেফতার হেফাজতের লোকমান আমিনী পুরো বিশ্বেই শান্তির সংস্কৃতি ছড়িয়ে দিতে চায় বাংলাদেশ: মোমেন ১২-১৩ এপ্রিল চলমান লকডাউনের নির্দেশনা জারি থাকবে: সেতুমন্ত্রী করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ ৭৭ জনের মৃত্যু অরাজকতা সৃষ্টির চেষ্টা করলে কঠোর ব্যবস্থা : আইনমন্ত্রী

পাবনায় অস্ত্র তৈরির কারখানার সন্ধান, দুজনকে গ্রেফতার

আজকের পটুয়াখালী

প্রকাশিত: ৮ মার্চ ২০২১  

পাবনার বেড়া উপজেলার আমিনপুর থানার নাটিয়াবাড়িতে একটি অস্ত্র তৈরির কারখানার সন্ধান পেয়েছে পুলিশ। সোমবার (৮ মার্চ) বিকেলে জেলা পুলিশ ও ডিবি পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে দুটি শাটারগান ও একটি বিদেশি রিভলবারসহ দুজনকে গ্রেফতার করেছে। এসময় অস্ত্র তৈরির বিপুল পরিমাণ সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতাররা হলেন-বেড়া উপজেলার রাকশা ভারেঙ্গা গ্রামের মৃত মকছেদ আলীর ছেলে আবদুল্লাহ আল মনসুর ওরফে মিনটু (৪৩) এবং একই উপজেলার রাজনারায়ণপুর গ্রামের হানিফ কাজীর ছেলে আবদুল্লাহ আল সিয়াম (১৯)। পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার( অপরাধ) মাসুদ আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ডিবি পুলিশের একটি দল দুপুরে বেড়া উপজেলার আমিনপুর থানার নাটিয়াবাড়ি মোড়ে জনৈক শাহ আলমের বাড়িতে অভিযান চালায়। সেখান থেকে অস্ত্র তৈরির বিপুল সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়। এছাড়া অস্ত্র তৈরির সঙ্গে জড়িত দুজনকে হাতেনাতে আটক করা হয়। অনেক দিন ধরেই এ বাড়ি থেকে অস্ত্র তৈরি করে বিভিন্ন স্থানে কেনাবেচা চলছিল বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বিকেল ৫টার দিকে পাবনা পুলিশ সুপার (এসপি) মহিবুল ইসলাম খাঁন জানান, অভিযান এখনো চলছে। অস্ত্র কারখানার আসল হোতা ও কারা কারা জড়িত তা জানার চেষ্টা চলছে।