বুধবার   ২০ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৬ ১৪২৬   ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

আজকের পটুয়াখালী
ব্রেকিং:
শাহজালালে পৌঁছেছে পাকিস্তানের ৮২ টন পেঁয়াজ ক্রিকেটের সঙ্গে টেনিসও এগিয়ে যাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী পটুয়াখালীতে বাস চলাচল শুরু রিফাত হত্যা : চার্জ গঠন ২৮ নভেম্বর র‌্যাব-৮ এর অভিযানে শীর্ষ সন্ত্রাসী গ্রেফতার ৭ ডিসেম্বর বিচারবিভাগীয় সম্মেলনে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী বরিশাল বোর্ডে এসএসসিতে বৃত্তি পাচ্ছেন ১৪১৭ শিক্ষার্থী কবি সুফিয়া কামালের মৃত্যুবার্ষিকী আজ বরিশাল বোর্ডে এসএসসির ফরম পূরণে সময় বাড়লো জাতীয় অর্থনীতিতে নারীর অবদান সবচেয়ে বেশি: পলক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ট্রাক মালিকদের ফের বৈঠক আজ চক্রান্তকারীদের আইনের আওতায় আনা হবে: ওবায়দুল কাদের দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী লবণের দাম বাড়ালে জেল-জরিমানা : বাণিজ্যমন্ত্রী লবণ নিয়ে গুজবে কান দিবেন না: শিল্প মন্ত্রণালয় গলাচিপায় যুবলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত ২০২১ সালের মধ্যে ১০০০ উদ্যোক্তা তৈরিতে সহায়তা দেবে সরকার পদ্মাসেতুর প্রায় আড়াই কিলোমিটার দৃশ্যমান সেনা কল্যাণ সংস্থার চারটি স্থাপনা উদ্বোধন মালিতে জঙ্গি হামলায় ২৪ সেনা নিহত
১৪৩৩

রোহিঙ্গা ডাকাত আস্তানার সন্ধান পেয়েছে র‌্যাব

প্রকাশিত: ৭ নভেম্বর ২০১৯  

বেপরোয়া হয়ে উঠা রোহিঙ্গা ডাকাত দলের খোঁজে পাহাড়গুলোতে এবার হেলিকপ্টার দিয়ে অভিযান শুরু করেছে র‌্যাব। বুধবার (৬ নভেম্বর) দুর্গম পাহাড়ে হেলিকপ্টার দিয়ে অভিযান চালিয়ে বেশ কয়েকটি আস্তানার সন্ধানও পেয়েছে তারা।

এদিকে, স্থানীয়দের দাবি, দুর্ধর্ষ রোহিঙ্গা হাকিম ডাকাতসহ ১৫টির বেশি বাহিনী ইয়াবা ব্যবসা, অপহরণের পর মুক্তিপণ আদায়, হত্যা এবং প্রত্যাবাসন বিরোধী কর্মকাণ্ডে জড়িত।

রোহিঙ্গা ক্যাম্পের পাশে বিশাল পাহাড়। দুর্গম এসব পাহাড়ে আস্তানা বানিয়েছে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর পৃষ্ঠপোষকতায় বেপরোয়া হয়ে উঠা রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের ১৫টির বেশি বাহিনী। খুন, অপহরণ, চাঁদাবাজি, ডাকাতিসহ এমন কোনো অপরাধ নেই যা করে না এসব বাহিনী। পরে নিরাপদে ঢুকে পড়ে এসব দুর্গম পাহাড়ে।

এবার এসব বাহিনীকে দমনে অভিযান শুরু করেছে র‌্যাব। পাহাড়গুলোতে ড্রোন অভিযান পরিচালনার পর হেলিকপ্টার দিয়ে অভিযান শুরু করেছে র‌্যাব। এ অভিযানে এসব বাহিনীর বেশ কয়েকটি আস্তানারও সন্ধান মিলেছে বলে দাবি করেন কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ রামু ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক উইং কমান্ডার আজিম আহমেদ।

নির্যাতন সহ্য করেও রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী বাহিনীগুলোর ভয়ে মুখ খোলেন না কক্সবাজারের ক্যাম্পে থাকা রোহিঙ্গারা। আর স্থানীয়দের দাবি, এসব রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী বাহিনীর কারণে তারাও আতংকে রয়েছেন।

এ বিষয়ে বিশেষজ্ঞ তোফায়েল আহমেদ জানান, এদের নেপথ্যে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর পৃষ্ঠপোষকতা রয়েছে। তাই দ্রুত এসব বাহিনীকে নিয়ন্ত্রণে আনা প্রয়োজন।

এর আগে গত ২৫ অক্টোবর প্রথমবারের মতো র‌্যাব হেড কোয়ার্টার থেকে ড্রোন এনে উড়িয়ে রোহিঙ্গা ডাকাতদের আস্তানায় অভিযান চালায় র‌্যাব। তবে সে সময় কাউকে ধরতে পারেননি তারা।

এই বিভাগের আরো খবর