• রোববার   ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ১৬ ১৪২৭

  • || ১৬ রজব ১৪৪২

আজকের পটুয়াখালী
ব্রেকিং:
দেশে কোনো গরিব মানুষ থাকবে না : তথ্যমন্ত্রী বেসরকারি চিকিৎসা সেবা ব্যয় নির্ধারণ শিগগিরই: স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাটকা সংরক্ষণে কাল থেকে ৬ জেলায় মাছ ধরা নিষিদ্ধ করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৮, শনাক্ত ৩৮৫ আমরা শিক্ষিত ও দক্ষ মানবসম্পদ গড়তে বদ্ধপরিকর: প্রধানমন্ত্রী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার ৬০ কর্মদিবস পর পরীক্ষা: শিক্ষামন্ত্রী এ এক বদলে যাওয়া বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের কৃতিত্ব নতুন প্রজন্মের : প্রধানমন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৫, শনাক্ত ৪০৭ উৎসবমুখর পরিবেশে হবে ৫ম ধাপের পৌরসভা নির্বাচন: কাদের মুজিবনগর-কলকাতা স্বাধীনতা সড়কের কাজ শেষ পর্যায়ে: এলজিআরডি মন্ত্রী রেলে ১২ হাজার লোক নিয়োগ দেয়া হবে: রেলপথ মন্ত্রী করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৫, শনাক্ত ৪১০ বঙ্গবন্ধুর পরিবার সততা, মেধা ও সাহসের প্রতীক: কাদের জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থগিত পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশ সাত কলেজের পরীক্ষা চলবে: শিক্ষা মন্ত্রণালয় করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৫, শনাক্ত ৪২৮ কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে সাধারণ মানুষও চিকিৎসা পাবেন: আইজিপি জনগণ ভালোবেসে আমাদের সরকার গঠনের সু্যোগ দিয়েছে: কাদের সাত কলেজের বিষয়ে সিদ্ধান্ত সন্ধ্যায়

লেবু নাকি গ্রিনটি, শীতে শরীর সুস্থ রাখবে কোন চা

আজকের পটুয়াখালী

প্রকাশিত: ২৪ জানুয়ারি ২০২১  

শীতের সকালে ঘুম ভেঙেই চায়ের কাপে চুমুক। শরীরকে গরম এবং চাঙ্গা রাখার এরচেয়ে ভালো উপায় আর কিছুই নেই। সারাদিনেও বেশ কয়েকবার চা খাওয়া হয়। শীতের সময়টাতে তা আবার একটু বেশিই। তবে অতিরিক্ত চিনি দেয়া চা কফি খেয়ে একদিকে যেমন স্বাস্থ্যের ক্ষতি করছেন, অন্যদিকে ওজন বেড়ে যাচ্ছে তরতরিয়ে।
তাই স্বাস্থ্য সচেতনরা খানিকটা দ্বিধাগ্রস্ত থাকেন। কোন চা এই সময় স্বাস্থ্যের জন্য ভালো হবে তা নিয়ে। ফিগার সচেতন যারা তারা অনেকেই গ্রিন টি বা সবুজ চা খান। অনেকে আবার লেবু চা খেতে বেশি পছন্দ করেন। চলুন দেখে নেয়া যাক কাদের জন্য কোন চা এই সময় বেশি ভালো।

লেবু চা পান করার উপকারিতা
লেবু ইমিউন সিস্টেমকে শক্তিশালী করে। লেবু আমাদের বডি ডিটক্সের জন্য খুব উপকারী। লেবু একটি লো-ক্যালোরি ফুড যা ওজন কমাতেও সহায়তা করে। ডায়াবেটিসে আক্রান্ত রোগীদের জন্যও লেবু চা অত্যন্ত উপকারী, যা ইনসুলিনের উৎপাদন বাড়ায়। লেবু চা পান করলে কার্ডিওভাসকুলার ডিজিজ-এর ঝুঁকি হ্রাস হয়। অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল সংক্রমণ এবং ভাইরাস সংক্রমণ থেকে স্বস্তি পাওয়া যায়।

গ্রিন টি পান করার উপকারিতা
গ্রিন টি সবচেয়ে স্বাস্থ্যকর ওয়েট লস পানীয় হিসেবে বিবেচিত হয়। গবেষণায় দেখা গেছে, এই সবুজ চায়ে রয়েছে ভিটামিন-এ, ভিটামিন-সি, ভিটামিন-ই, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম ছাড়াও বিভিন্ন খনিজ উপাদান যা প্রতিটি মানুষের শরীরেই প্রয়োজন। গ্রিন টি পান করলে ভাইরাস এবং সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা শক্তিশালী হয়। এটি হৃদরোগ এবং অস্টিওপরোসিস-সহ অনেক রোগের ঝুঁকি হ্রাস করে। বিভিন্ন গবেষণা অনুযায়ী, গ্রিন টি পান করলে তা শরীরকে বিভিন্ন ধরনের ক্যান্সার থেকে রক্ষা করে। এটি উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণেও সহায়তা করে।