• মঙ্গলবার   ২৫ জানুয়ারি ২০২২ ||

  • মাঘ ১২ ১৪২৮

  • || ২০ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

আজকের পটুয়াখালী
ব্রেকিং:
বারবার প্রকল্প সংশোধনে বিরক্তি প্রকাশ প্রধানমন্ত্রীর দেশীয় উদ্যোক্তারা বিদেশে সার কারখানা নির্মাণে বিনিয়োগ করতে পারবে গণঅভ্যুত্থানের চেতনায় সমৃদ্ধ দেশ গঠনের আহ্বান রাষ্ট্রপতির করোনায় ভয়াবহ কিছু হবে না: অর্থমন্ত্রী শহীদ আসাদ গণতন্ত্রপ্রেমী মানুষের মাঝে স্মরণীয় হয়ে থাকবেন গণতন্ত্রের ইতিহাসে শহীদ আসাদ দিবস একটি অবিস্মরণীয় দিন শহীদ আসাদ দিবস আজ ‘বাংলাদেশকে আর কেউ অবহেলা করতে পারবে না’ সার্বভৌমত্বের ওপর আঘাত এলে চুপ থাকবে না বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার সংস্কৃতি গড়তে ডিসিদের প্রতি নির্দেশ ভয়-লোভের ঊর্ধ্বে থাকুন, ডিসিদের প্রধানমন্ত্রী ডিসিদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর ২৪ দফা নির্দেশনা ‘শহিদ ও মুক্তিযোদ্ধা পরিবার ভিক্ষা করবে আমি দেখতে চাই না’ ওমিক্রনে মৃত্যু বাড়ছে, সচেতন থাকার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর সেবা নিতে এসে মানুষ যেন হয়রানির শিকার না হন: প্রধানমন্ত্রী তৃণমূলের মানুষের জীবনমান উন্নত করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী ইসির সক্ষমতা বাড়ানোর প্রস্তাব আওয়ামী লীগের সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন কমিশন গঠনে গুরুত্ব আরোপ রাষ্ট্রপতির ইসি গঠনে আইনের খসড়া অনুমোদন মন্ত্রিসভায় জঙ্গিবাদ নির্মূলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

উপকূলে দস্যুতায় জড়িতদের কঠোর বার্তা দিলেন র‍্যাব ডিজি

আজকের পটুয়াখালী

প্রকাশিত: ১৩ ডিসেম্বর ২০২১  

সুন্দরবন দস্যুমুক্ত হওয়ার পর যারা বরিশাল সমুদ্র উপকূলে দস্যুপনা করছে তাদের কঠোর বার্তা দিয়েছেন র‍্যাব মহাপরিচালক (ডিজি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন। তিনি বলেন, ‘আমরা আশা করেছিলাম দস্যুপনা ছেড়ে সবাই স্বাভাবিক জীবনে ফিরবেন। এরপরও দেখেছি কিছুদিন আগে বেশ কয়েকটি ঘটনা ঘটেছে। দস্যুরা মনে করছে, র‍্যাব যে বয়ান দিয়ে গেছে শুনলাম, এরপর চলে আসলাম, কাল থেকে শেষ।’

‘তাদের বলছি, আমরা যেটা বলি সেটা কিন্তু করি। আপনারা দস্যুপনা করবেন না, করলেই কিন্তু বিপদ। আমরা হোমিওপ্যাথি দিয়েছি মনে করেন না অ্যালোপ্যাথি বন্ধ করেছি। অ্যালোপ্যাথি কিন্তু পকেটে আছে। যেখানে যে ব্যবস্থা নেওয়া দরকার আমরা সেই ব্যবস্থা নেবো।’

রোববার (১২ ডিসেম্বর) বরগুনার পাথরঘাটা লঞ্চঘাট পরিদর্শনে গিয়ে এসব কথা বলেন র‍্যাব মহাপরিচালক।

তিনি বলেন, ‘২০১৮ সালে প্রধানমন্ত্রী সুন্দরবনকে দস্যুমুক্ত ঘোষণা করেন। এরপরও দু-একজন দস্যু চেষ্টা করেছে তাদের কর্মকাণ্ড চালাতে। কিন্তু আমরা তাদের আইনগতভাবে কঠোরভাবে মোকাবিলা করেছি। যেসব ডাকাত-দস্যু আত্মসমর্পণ করেছে, গত মাসেও আমরা তাদের ঘর দিয়েছি, দোকান দিয়েছি, গরু ও জালসহ নৌকা দিয়েছি। সবই করেছি আমাদের অর্থায়নে। সুস্থ স্বাভাবিক জীবনে ফেরাতে এসব করেছি। কারণ তারা যাতে সমাজের মূলধারায় ফিরে আসতে পারে।’

যারা দস্যুতা ছেড়ে এখনো আত্মসমর্পণ করেননি তাদের সতর্ক করে র‍্যাব ডিজি বলেন, ‘যারা এখনো আত্মসমর্পণ করেননি তাদের বলছি দস্যুপনা সম্মানজনক কাজ নয়। কারণ একজন দস্যুর সন্তান স্কুলে গিয়ে বলতে পারে না তার বাবা কী করে। আমার বাবা অমুক ডাকাত সর্দার। সেই বাচ্চা লজ্জিত হয়। এই লজ্জা নয়, আমরা চাই দস্যুরা সম্মানের সঙ্গে, গর্বের সঙ্গে ব্যবসা করবে মাথা উঁচু করে বাঁচবে। আমরা আহ্বান জানাচ্ছি আপনারা দস্যুপনা থেকে সরে আসেন। আমরা চেষ্টা করছি আর্থিকভাবে সহায়তা করা ও মাথা গোঁজার ঠাঁই করে দিতে।’

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিয়েছেন, ওই নির্দেশনার আলোকে সবাই যাতে সৎপথে আসেন, সৎভাবে ব্যবসা করেন। দরকার নেই ডাকাতি করে নদীর মধ্যে বসবাস করে জীবনযাপন করার।

‘হুঁশিয়ার করে দিতে চাই, এখনো যারা এ পথে আছেন তারা সৎপথে চলে আসেন। আমাদের যদি সাহায্য লাগে আমরা প্রস্তুত। কিন্তু ওই পথে থেকে সাধারণ জেলেদের সাগরে নামা বন্ধ করে দেবেন, এটা আমরা হতে দেবো না।’

চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন আরও বলেন, আমরা সুন্দরবনকে দস্যুমুক্ত করেছি, সাগরও নিয়ন্ত্রণে আছে। সাগরের দস্যুপনা পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আনবো। এটা নিয়ে আমরা দৃঢ় প্রতিজ্ঞ।

জেলে ও মৎস্য ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আমরা সবাই মিলে আপনাদের সঙ্গে আছি। পাশে দাঁড়িয়েছি। আপনারা নিশ্চিন্তে মৎস্য আহরণ করুন, আমরা আগামী দিনেও আপনাদের পাশে থাকবো।