• সোমবার ২২ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ৭ ১৪৩১

  • || ১৪ মুহররম ১৪৪৬

আজকের পটুয়াখালী
ব্রেকিং:
তিন দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে ২১ জুলাই স্পেন যাবেন প্রধানমন্ত্রী আমার বিশ্বাস শিক্ষার্থীরা আদালতে ন্যায়বিচারই পাবে: প্রধানমন্ত্রী কোটা সংস্কার আন্দোলনে প্রাণহানি ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত করা হবে মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ সম্মান দেখাতে হবে : প্রধানমন্ত্রী পবিত্র আশুরা মুসলিম উম্মার জন্য তাৎপর্যময় ও শোকের দিন আশুরার মর্মবাণী ধারণ করে সমাজে সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠার আহ্বান মুসলিম সম্প্রদায়ের উচিত গাজায় গণহত্যার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হওয়া নিজেদের রাজাকার বলতে তাদের লজ্জাও করে না : প্রধানমন্ত্রী দুঃখ লাগছে, রোকেয়া হলের ছাত্রীরাও বলে তারা রাজাকার শেখ হাসিনার কারাবন্দি দিবস আজ ‘চীন কিছু দেয়নি, ভারতের সঙ্গে গোলামি চুক্তি’ বলা মানসিক অসুস্থতা দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করে না দেশের অর্থনীতি এখন যথেষ্ট শক্তিশালী : প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগ সরকার ব্যবসাবান্ধব সরকার ফুটবলের উন্নয়নে সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে সরকার যথাযথ প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বিশ্বমানের খেলোয়াড় তৈরি করুন চীন সফর নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে আসছেন প্রধানমন্ত্রী টেকসই উন্নয়নে পরিকল্পিত ও দক্ষ জনসংখ্যার গুরুত্ব অপরিসীম বাংলাদেশে আরো বিনিয়োগ করতে চায় চীন: শি জিনপিং চীন সফর শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী

ভোটে জিততে ভরসা ফকির বাবার ‘জুতোর বাড়ি’!

আজকের পটুয়াখালী

প্রকাশিত: ১৯ নভেম্বর ২০২৩  

কথায় আছে, জুতো মেরে গরু দান। তবে এখানে ঠিক গরু নয়, জুতো মেরে ভোটে জেতানো হচ্ছে, এমনটা বলা যেতে পারে। সম্প্রতি ভারতের মধ্যপ্রদেশের বিধানসভার নির্বাচনকে ঘিরে এক প্রার্থীর একটি ভাইরাল হওয়া ভিডিওতেই মিলেছে সেই জবাব। যেখানে কংগ্রেসের প্রার্থী হওয়া পারাস সাখলেচাকে ভোটে জয়ী হতে জুতোর মার খেতে দেখা গিয়েছে।

শনিবার (১৮ নভেম্বর) ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, সাখলেচা এর আগে ২০১৩ ও ২০১৮ সালে মধ্যপ্রদেশের বিধানসভা নির্বাচনে দাঁড়িয়েছেন। কিন্তু জয়ী হতে পারেনি। এজন্য এবার তিনি জয়ী হতে বৃহস্পতিবার (১৬ নভেম্বর) ওই ফকির বাবার কাছে নতুন জুতা নিয়ে দোয়া চাইতে যান।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা যায়, নতুন জুতা বাবার কাছে দেয়ার পর তা দিয়ে সাখলেচাকে মারতে শুরু করেন ফকির। একবার পিঠে, একবার গালে, এমনকি কংগ্রেস নেতার মাথায় পর্যন্ত জুতো দিয়ে মারছিলেন ওই ফকির। অথচ একবারের জন্য প্রতিবাদ করেননি কংগ্রেস নেতা। জুতার বাড়ি খেয়েও সাখলেচাকে হাসতেও দেখা যায়।

ওই বাবা একজন ফকির। স্থানীয়রা তাকে বাবা বলে ডাকেন। অনেকে তার কাছ থেকে দোয়া নিতে যান।

এ বিষয়ে সাখলেচা বলেন, তিনি একজন বিখ্যাত ফকির বাবা, সবাই তাকে বাবা বলেই ডাকেন। মানুষজন তাকে ভালোবেসে লুঙ্গি চপ্পল দান করেন। অনেকেই মনে করেন তার আধ্যাত্মিক ক্ষমতা আছে। আর এই ক্ষমতা বলে তিনি অশুভ শক্তিতে দূর করতে পারেন।

প্রসঙ্গত,  শুক্রবার (১৭ নভেম্বর) মধ্যপ্রদেশের বিধানসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এ নির্বাচন প্রায় ৭৬.২২ শতাংশ ভোট পড়ে। আগামী ৩ ডিসেম্বর ভোটের ফলাফল প্রকাশ করা হবে।