• বৃহস্পতিবার   ০৭ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ২২ ১৪২৯

  • || ০৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

আজকের পটুয়াখালী
ব্রেকিং:
এলাকাভিত্তিক লোডশেডিংয়ের সূচি তৈরির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ডিজিটাল ডিভাইস আমরা রপ্তানি করব : প্রধানমন্ত্রী ২০৪১ সালে স্মার্ট বাংলাদেশ করা হবে: প্রধানমন্ত্রী বঞ্চিত মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনে দেশে ফিরেছিলাম: প্রধানমন্ত্রী ইনকিউবেটরের হাত ধরে ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ কারো ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করবেন না: প্রধানমন্ত্রী অনেক দেশেই এখন বিদ্যুতের জন্য হাহাকার: প্রধানমন্ত্রী কুমিল্লা সিটি নির্বাচনে মানুষ স্বতস্ফূর্তভাবে ভোট দিতে পেরেছে বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর প্রতি বর্গফুট গরুর চামড়া ৪৭, খাসি ‌১৮ টাকা নির্ধারণ কাউকে যেন কষ্ট না পেতে হয়: প্রধানমন্ত্রী ভিভিআইপিদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন: পিজিআরকে রাষ্ট্রপতি জাতির পিতার সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা, মোনাজাত পদ্মা সেতুতে সন্তানদের নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সেলফি ‘পদ্মা সেতু ও রপ্তানি আয় জাতির সক্ষমতা প্রমাণ করছে’ টোল দিয়ে পদ্মা সেতুতে উঠলেন প্রধানমন্ত্রী, গাড়ি থামিয়ে উপভোগ করলেন সৌন্দর্য পদ্মা সেতু নির্মাণের সব কৃতিত্ব জনগণের: প্রধানমন্ত্রী সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আন্তরিকতায় দেশকে এগিয়ে নিতে পেরেছি পারিবারিক আদালত আইনের খসড়া অনুমোদন ঈদের আগে পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল চলছে না

কৃমির সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন যেভাবে

আজকের পটুয়াখালী

প্রকাশিত: ২২ জুন ২০২২  

কৃমির সমস্যায় ছোট-বড় কমবেশি সবাই ভোগেন। বিশেষজ্ঞদের মতে, অস্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাসের কারণে অন্ত্রে কৃমি ও পরজীবীর জন্ম হয়। কৃমির সমস্যা যদিও সাধারণ। তবে এই বিষয় নিয়ে অবহেলা করা মোটেও উচিত নয়।

কৃমি অন্ত্রে বাসা বাঁধলে শারীরিক বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয়, যেমন- ক্ষুধামন্দা, ক্লান্তি, পেট ব্যথা, বমি বমি ভাব, হঠাৎ ওজন কমে যাওয়া, মলদ্বারে চুলকানি, পেট খারাপ হওয়া ইত্যাদি।

যদিও ওষুধের মাধ্যমে সহজেই কৃমি দূর করা যায়, তবে ঘরোয়া উপায়েও চাইলে খাদ্যতালিকায় নির্দিষ্ট কিছু খাবার অন্তর্ভুক্ত করে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন।

মাত্র কয়েকটি খাবারই দূর করতে পারে কৃমির সমস্যা। চলুন তবে জেনে নেওয়অ যাক কৃমি থেকে বাঁচতে ডায়েটে কোন কোন খাবার অন্তর্ভুক্ত করবেন-

>> রসুন শরীরের ব্যাকটেরিয়া ও পরজীবী ধ্বংস করতে দুর্দান্ত কার্যকর। এতে এলিসিন ও এজোয়েন যৌগ এ সমস্যার জন্য দায়ী অ্যামিবা ধ্বংস করে। তাছাড়া নিয়মিত রসুনের সেবন শরীরকে ডিটক্সিফাই করে ও প্যারাসাইট টক্সিন দ্বারা সৃষ্ট অক্সিডেশন থেকেও রক্ষা করে।

>> সবার রান্নাঘরেই থাকে হলুদ। বহুগুণসম্পন্ন হলুদ অ্যান্টি-ক্যানসার, অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি ও ক্ষত নিরাময়কারী বৈশিষ্ট্যের জন্য পরিচিত। হলুদ রক্ত পরিষ্কার করতে পারে, ব্যাকটেরিয়া ও পরজীবী ধ্বংসও করতে পারে।

>> কাঁচা কুমড়ার বীজে থাকে কারকারবিটিননামক যৌগ। যা অ্যান্টি-পরজীবী বৈশিষ্ট্যযুক্ত। এটি অন্ত্র ও পরিপাকনালির কৃমিকে ধ্বংস করতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে।

>> গবেষণা অনুসারে, পেঁপের বীজ পরজীবী কৃমির বিরুদ্ধে লড়াই করতে দারুণ কার্যকর। পেঁপের বীজ অন্ত্রের পরজীবী যেমন হুকওয়ার্ম, টেপওয়ার্ম ও পিনওয়ার্মকে মেরে ফেলতে সাহায্য করে।

>> নিমপাতায় অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল বৈশিষ্ট্য থাকে। যা অন্ত্রকে সুস্থ ও সুরক্ষিত রাকে। এছাড়া নিমপাতা অন্ত্রের খারাপ ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করতে ও হজম প্রক্রিয়া উন্নত করে। সকালবেলা খালি পেটে কয়েকটি নিম পাতা চিবিয়ে খেলেই দূর হবে কৃমি।