• শুক্রবার   ২৭ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৪ ১৪২৯

  • || ০৪ রজব ১৪৪৪

আজকের পটুয়াখালী
ব্রেকিং:
কাউকে সম্প্রীতি নষ্ট করতে দেব না: প্রধানমন্ত্রী আর্থসামাজিক উন্নয়নে বাংলাদেশ এখন রোল মডেল: প্রধানমন্ত্রী বিদেশি বিনিয়োগ বাড়াতে কাস্টমের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে একাত্তরে গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি আমার ব্যর্থতা থাকলে খুঁজে বের করে দিন: প্রধানমন্ত্রী পরবর্তী লক্ষ্য স্মার্ট বাংলাদেশ প্রতিটি শিক্ষার্থী যেন স্কাউট প্রশিক্ষণ পায়: প্রধানমন্ত্রী সংঘাত, সন্ত্রাস ও ক্ষমতা দখলকে পেছনে ফেলে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে মাইকেল মধুসূদন দত্ত বাংলা সাহিত্যের উজ্জ্বল নক্ষত্র ২০৪১ সালে মাথাপিছু আয় হবে ১২ হাজার ডলার: প্রধানমন্ত্রী টেক্কা দিয়ে বাংলাদেশের এগোনো অনেকের পছন্দ না: প্রধানমন্ত্রী জনগণের পয়সায় সুযোগ-সুবিধা, তাদের সেবা করুন অপ্রয়োজনীয় ব্যয় কমিয়ে খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতে গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার ডিসি সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর ২৫ নির্দেশনা জনগণের সেবায় আত্মনিয়োগ করতে হবে: ডিসিদের প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর শাসনামল নিয়ে গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী ৬৯’র গণঅভ্যুত্থানে শহীদের রক্ত বৃথা যায়নি: রাষ্ট্রপতি অপশাসনের বিরুদ্ধে ৬৯’র গণঅভ্যুত্থান অনুপ্রেরণার: প্রধানমন্ত্রী বৃহত্তর বৈশ্বিক সহায়তার ওপর গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রীর আমাদের পরবর্তী লক্ষ্য স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণ: প্রধানমন্ত্রী

কাশির সঙ্গে কফ উঠছে? শরীরে বাসা বাঁধতে পারে যে রোগ

আজকের পটুয়াখালী

প্রকাশিত: ৮ জানুয়ারি ২০২৩  

আবার বাড়তে শুরু করেছে করোনা। এই ভাইরাস মিউটেট করে এসে আবার সমস্যা তৈরি করেছে। তাই বৃদ্ধি পাচ্ছে আক্রান্তের সংখ্যা। মুশকিল হচ্ছে, শুধু আক্রান্ত বৃদ্ধি নয়, এর পাশাপাশি কিছু সমস্যাও দেখা দিচ্ছে। নতুন নতুন উপসর্গ সামনে আসছে। তাই করোনাভাইরাসকে নিয়ে ছেলেখেলা বন্ধ করতে বলছেন বিশেষজ্ঞরা।

এখন চারিদিকে বিএফ.৭ নিয়ে মাথাব্যথা। এই ভাইরাস কিন্তু বিভিন্ন জটিল সমস্যার কারণ। এই ভাইরাস হল ওমিক্রনের মিউটেট করা রূপ। চিনে করোনা বৃদ্ধির অন্যতম কারণ এই জীবাণু। এরপর থেকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও এই ভাইরাসকে ভ্যারিয়েন্ট অব কনসার্ন বা চিন্তার কারণ বলে দিয়েছে।

করোনাভাইরাসের উপসর্গ সবসময় একরকম থাকছে না। কিছু সময় তা বদলে বদলে যাচ্ছে। আগে যা লক্ষণ জানা গিয়েছিল তার সঙ্গে সংযোজন হচ্ছে নতুন কিছু। এই কারণে সচেতন থাকতে হবে।

আসলে করোনার শুরুর সময় থেকেই কাশি ছিল উপসর্গ। তবে হতো শুকনো কাশি। কিন্তু বর্তমানে কাশির সঙ্গে কফও উঠছে। আর এর থেকেই মানুষের মধ্যে বিভ্রান্তি ছড়িয়েছে। এই পরিস্থিতিতে সাবধান হওয়ার চেষ্টা করুন।

>>টিওআই-এর একটি প্রতিবেদন জানাচ্ছে, কাশির সঙ্গে কফ থাকছে অনেকের। জোয়ো কোভিড অ্যাপকে উদ্ধৃত করা এখানে বলা হয়েছে, করোনা আক্রান্তদের মধ্যে কাশি তো থাকছেই, পাশাপাশি কফও বের হচ্ছে। এই কফ জমে থাকে আপনার রেসপিরেটরি প্যাসেজে। এবার কফের রং নিয়ে তেমন একটা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। নানা রঙের হতে পারে। গবেষণায় দেখা গেছে যে কাশির সঙ্গে কফ ওঠা ব্যক্তিদের প্রায় ৪৫ শতাংশ কোভিডে আক্রান্ত। তাই সতর্ক তো থাকতেই হবে। তবেই বাঁচতে পারবেন।

>>সেকেন্ডারি ইনফেকশনের কথা ভুলে গেলে চলবে না। এই অ্যাপের পক্ষে থেকে জানানো হয়েছে যে এই কোভিডের পাশাপাশি হতে পারে সেকেন্ডারি ব্যাকটেরিয়াল ইনফেকশন। আবার করোনা ছাড়াও এই সংক্রমণ হওয়া সম্ভব। কফের রং হলুদ বা সবুজ হলে আপনাকে সতর্ক হতে হবে। কারণ সঠিক সময়ে ব্যবস্থা না নিলে সমস্যা হতে পারে। দ্রুত চিকিৎসা প্রয়োজন। নইলে নিউমোনিয়া হয়। শ্বাসকষ্ট হওয়া সম্ভব। এমনকি মৃত্যুও হতে পারে।

>>আসলে কোভিডের কাশি নানা ক্ষেত্রে জটিলতা তৈরি করে। এই কাশি হতে পারে ইনফেকশনের প্রথম সপ্তাহে। এরপর থেকে বুকে ব্যথা, ক্লান্তি, মাথা ব্যথা এবং শ্বাসকষ্ট দেখা দিতে পারে। তাই কোভিডের কাশি নিয়ে আপনাকে সতর্ক হতেই হবে। তবেই রোগ থেকে আপনি বাঁচতে পারবেন। অন্যথায় জটিলতা দেখা দিতে পারে। এবার এই লক্ষণ দেখা দিলেই একবার টেস্ট করিয়ে নিন। পজিটিভ এলে সেইমতো ব্যবস্থা নিন। দেখবেন ভালো আছেন।

>> এনএইচএস ইউকে বলছে যে, কাশির সঙ্গে কফ উঠলে আপনাকে সতর্ক থাকতে হবে। এরপর এই নিয়মগুলো মেনে চলুন-

*জলপান করুন অনেকটা পরিমাণে

*স্টিম নিন

*ব্রিদিং কন্ট্রোল টেকনিক মানতে হবে

*নাক দিয়ে শ্বাস নিন এবং শ্বাস ছাড়ুন নাক দিয়ে।

*এভাবেই আপনি সমস্যার সমাধান করে ফেলতে পারবেন। তাই চিন্তার কোনও কারণ নেই বললেই চলে।

*তবে অনেকসময় এই উপায়ে কাজ হয় না। তখন চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

*​কোভিডের অন্যান্য লক্ষণ

এর পাশাপাশি করোনার অনেক উপসর্গ দেখা দিতে পারে-

*গলা ব্যথা

*নাক বন্ধ হয়ে যাওয়া

*হাঁচি

*কাশি

*মাথা ব্যথা

*গলা ভেঙে যাওয়া

*পেশিতে ব্যথা

*স্বাদ ও গন্ধ নিতে সমস্যা ইত্যাদি।