• শুক্রবার   ২৭ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৪ ১৪২৯

  • || ০৪ রজব ১৪৪৪

আজকের পটুয়াখালী
ব্রেকিং:
কাউকে সম্প্রীতি নষ্ট করতে দেব না: প্রধানমন্ত্রী আর্থসামাজিক উন্নয়নে বাংলাদেশ এখন রোল মডেল: প্রধানমন্ত্রী বিদেশি বিনিয়োগ বাড়াতে কাস্টমের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে একাত্তরে গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি আমার ব্যর্থতা থাকলে খুঁজে বের করে দিন: প্রধানমন্ত্রী পরবর্তী লক্ষ্য স্মার্ট বাংলাদেশ প্রতিটি শিক্ষার্থী যেন স্কাউট প্রশিক্ষণ পায়: প্রধানমন্ত্রী সংঘাত, সন্ত্রাস ও ক্ষমতা দখলকে পেছনে ফেলে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে মাইকেল মধুসূদন দত্ত বাংলা সাহিত্যের উজ্জ্বল নক্ষত্র ২০৪১ সালে মাথাপিছু আয় হবে ১২ হাজার ডলার: প্রধানমন্ত্রী টেক্কা দিয়ে বাংলাদেশের এগোনো অনেকের পছন্দ না: প্রধানমন্ত্রী জনগণের পয়সায় সুযোগ-সুবিধা, তাদের সেবা করুন অপ্রয়োজনীয় ব্যয় কমিয়ে খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতে গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার ডিসি সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর ২৫ নির্দেশনা জনগণের সেবায় আত্মনিয়োগ করতে হবে: ডিসিদের প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর শাসনামল নিয়ে গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী ৬৯’র গণঅভ্যুত্থানে শহীদের রক্ত বৃথা যায়নি: রাষ্ট্রপতি অপশাসনের বিরুদ্ধে ৬৯’র গণঅভ্যুত্থান অনুপ্রেরণার: প্রধানমন্ত্রী বৃহত্তর বৈশ্বিক সহায়তার ওপর গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রীর আমাদের পরবর্তী লক্ষ্য স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণ: প্রধানমন্ত্রী

অতিরিক্ত কাজের চাপেও ভারসাম্য রাখবেন যেভাবে

আজকের পটুয়াখালী

প্রকাশিত: ২৩ জানুয়ারি ২০২৩  

দৈনন্দিন জীবনে আমাদের নানা কাজে ব্যস্ত থাকতে হয়। সেটা হোক অফিসে কিংবা ব্যবসার জন্য। কর্মক্ষেত্রে এই কাজের চাপে আমরা অনেক সময় নিজেদের ভারসাম্য হারিয়ে ক্লান্ত হয়ে যাই। এ ক্ষেত্রে কিছু পদ্ধতি অবলম্বন করলে কাজের চাপেও নিজেকে চাঙা রাখতে পারবেন।

কাজের চাপের মধ্যেও নিজের জীবনের ভারসাম্য রাখতে হবে এ কথা হরহামেশায় শোনা যায়। কিন্তু কীভাবে সেই ভারসাম্য বজায় রাখতে হবে সেটা অনেকেই জানেন না। আর তাইতো ক্লান্ত হয়ে পড়েন অনেকে। আজকেই এই প্রতিবেদনে থাকছে কীভাবে কাজের চাপের মধ্যেও নিজের জীবনের ভারসাম্য বজায় রাখবেন।

প্রথমত, আপনি যদি কোনো কাজের মধ্যে না থাকেন, তাহলে কাজের সঙ্গে জড়িত কোনো প্রকার যন্ত্রের ব্যবহার করবেন না। মোট কথা হচ্ছে ওই সময়টা প্রযুক্তির থেকে নিজেকে দূরে রাখুন।

মানসিক অবসাদ কাটাতে প্রয়োজনে কোনো মনোবিশেষজ্ঞের কাছে যেতে হতে পারে। এতে সুবিধা হতে পারে। আবার প্রয়োজন ও সুবিধামতো বিরতিও নিতে পারেন। বিরতি কাজেরই অংশ, প্রয়োজন বুঝে অল্প সময়ের বিরতি নিতে পারেন।

আর যদি অল্প বিরতিতে কোনো ফলাফল না আসে তাহলে একটু বড় 'বিরতি' নিয়ে কোথাও যেতে পারেন। ঘুরে আসতে পারেন। বা কাজের জায়গার সঙ্গে সব সম্পর্ক ছিন্ন করে দিন। নিজের সঙ্গে সময় কাটান। নিজের মতো করে, প্রকৃতির কোলে কোথাও হলে সবচেয়ে ভালো।

শারীরিক ব্যায়াম আবার এক্ষেত্রে দুর্দান্ত কাজে দিতে পারে। বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিয়ে নির্দিষ্ট মেডিটেশন করতে পারেন।

সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কথা হলো যতই নিজেকে বিধ্বস্ত লাগুক না কেন সহকর্মী, বন্ধু বা ভরসার যে কোনো মানুষকে সে কথা জানান। নিজের মধ্যে গুটিয়ে না রাখাই ভালো হবে। এমনও হতে পারে আপনার কথা অন্যের কাছে বলায় নিজেকে হালকা লাগতে পারে ও একটি সমাধানও আসতে পারে।