• বৃহস্পতিবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৮ ১৪২৮

  • || ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩

আজকের পটুয়াখালী
ব্রেকিং:
প্রশিক্ষিত সামরিক বাহিনী গঠনে বিভিন্ন পরিকল্পনা প্রণয়ন করেছি বাংলাদেশ আর পিছিয়ে যাবেনা, এগিয়ে যাবে : প্রধানমন্ত্রী যে কোনো চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় বাংলাদেশ সদাপ্রস্তুত পার্বত্য শান্তিচুক্তির ফলে দীর্ঘদিনের সংঘাতের অবসান ঘটে পার্বত্য শান্তিচুক্তি বিশ্বের ইতিহাসে বিরল ঘটনা: প্রধানমন্ত্রী ব্যবসায়ীদের দেশের মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর ২৪ বছরে পার্বত্য শান্তি চুক্তি আইন নিজের হাতে তুলে নেবেন না: প্রধানমন্ত্রী গাড়ি ভাঙচুর-আগুন দিলেই ব্যবস্থা: প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল উদ্বোধন ও জয়িতা টাওয়ারের ভিত্তি স্থাপন সব গণতান্ত্রিক আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়েছে ঢাবি: প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গা ইস্যুতে জাতিসংঘ বাংলাদেশকে অব্যাহত সমর্থন দেবে ওমিক্রন: করণীয় নির্ধারণে বৈঠকে ১৮ মন্ত্রণালয় রাজস্ব বোর্ডকে সেবাধর্মী, জনবান্ধব ও করদাতাবান্ধব করেছে সরকার ষড়যন্ত্র থাকবে, তবু দেশ এগিয়ে যাবে: প্রধানমন্ত্রী বৈদেশিক বিনিয়োগে বাংলাদেশের গুরুত্ব দিন দিন বাড়ছে: প্রধানমন্ত্রী অর্থনৈতিক অঞ্চলসমূহে ২৭ বিলিয়ন ডলারের বিনিয়োগ প্রস্তাব পেয়েছি বিনিয়োগ শীর্ষ সম্মেলন উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী বিজনেস সামিট বিনিয়োগ বাজার তৈরি করবে: প্রধানমন্ত্রী তৃতীয় ধাপে এক হাজার ইউপিতে ভোটগ্রহণ শুরু

গলাচিপায় ইভিএম মেশিন ছিনতাইয়ে জড়িত ৩ জন গ্রেপ্তার

আজকের পটুয়াখালী

প্রকাশিত: ১৬ নভেম্বর ২০২১  

পটুয়াখালী প্রতিনিধিঃ পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার পানপট্টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ব্যবহৃত ইভিএম মেশিন ছিনতাইয়ে জড়িত ৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে গলাচিপা থানা পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতরা হল একই ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের গ্রামর্দন গ্রামের আমির হাওলাদারের ছেলে জামাল (৪০), মৃত ফজলুল করিমের ছেলে জাকির (৩৮) ও হানিফ হাওলাদারের ছেলে জীবন (৩৭)। সোমবার রাত দেড়টায় রতনদী-তালতলী থেকে এজাহারভূক্ত পলাতক এই তিন আসামীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বেলা এগারটায় সাংবাদিকদের বিষয়টি নিশ্চিত করেন গলাচিপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এমআর শওকত আনোয়ার।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গলাচিপা উপজেলার পানপট্টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ভোটগ্রহনের দিন বৃহস্পতিবার (১১নভেম্বর) ৫ নম্বর ওয়ার্ডের ভোটকেন্দ্রে হামলা ও তান্ডব চালিয়ে ৮টি ইভিএম মেশিন ছিনতাই করে নিয়ে যায় হামলাকারীরা। এ দিন সন্ধ্যার পরে একই ওয়ার্ডের পরাজিত মেম্বার প্রার্থী হারুন, নুরুল ইসলাম, দুধা মেম্বারের নেতৃত্বে ৮ থেকে ৯শ’ লোক এ হামলা চালানো হয়। এসময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রেনে আনতে পুলিশ ২৭ রাউন্ড শটগানের গুলি বর্ষন করে । এমসয় কাউকে আটক করতে না পারলেও ছিনতাইয়ের ৬ ঘন্টা পর ৮টি ইভিএম মেশিনই উদ্বার করে পুলিশ। পরে এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ২৭ জনের নাম উল্লেখসহ ৭০০ অজ্ঞাতের মামলা করে কেন্দ্রের দ্বায়িত্বপালন (ইনচার্জ) পুলিশ কর্মকর্ত।

গলাচিপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এমআর শওকত আনোয়ার জানান, ইভিএম মেশিন ছিনতাইয়ে জড়িত সকলকে গ্রেপ্তারের জোড় প্রচেস্টা অব্যাহত রয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতদের আদালতে সোপর্দ করা হবে।