• শুক্রবার   ২৭ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৪ ১৪২৯

  • || ০৪ রজব ১৪৪৪

আজকের পটুয়াখালী
ব্রেকিং:
কাউকে সম্প্রীতি নষ্ট করতে দেব না: প্রধানমন্ত্রী আর্থসামাজিক উন্নয়নে বাংলাদেশ এখন রোল মডেল: প্রধানমন্ত্রী বিদেশি বিনিয়োগ বাড়াতে কাস্টমের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে একাত্তরে গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি আমার ব্যর্থতা থাকলে খুঁজে বের করে দিন: প্রধানমন্ত্রী পরবর্তী লক্ষ্য স্মার্ট বাংলাদেশ প্রতিটি শিক্ষার্থী যেন স্কাউট প্রশিক্ষণ পায়: প্রধানমন্ত্রী সংঘাত, সন্ত্রাস ও ক্ষমতা দখলকে পেছনে ফেলে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে মাইকেল মধুসূদন দত্ত বাংলা সাহিত্যের উজ্জ্বল নক্ষত্র ২০৪১ সালে মাথাপিছু আয় হবে ১২ হাজার ডলার: প্রধানমন্ত্রী টেক্কা দিয়ে বাংলাদেশের এগোনো অনেকের পছন্দ না: প্রধানমন্ত্রী জনগণের পয়সায় সুযোগ-সুবিধা, তাদের সেবা করুন অপ্রয়োজনীয় ব্যয় কমিয়ে খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতে গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার ডিসি সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর ২৫ নির্দেশনা জনগণের সেবায় আত্মনিয়োগ করতে হবে: ডিসিদের প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর শাসনামল নিয়ে গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী ৬৯’র গণঅভ্যুত্থানে শহীদের রক্ত বৃথা যায়নি: রাষ্ট্রপতি অপশাসনের বিরুদ্ধে ৬৯’র গণঅভ্যুত্থান অনুপ্রেরণার: প্রধানমন্ত্রী বৃহত্তর বৈশ্বিক সহায়তার ওপর গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রীর আমাদের পরবর্তী লক্ষ্য স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণ: প্রধানমন্ত্রী

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ বিশ্ব দরবারে সম্মানিত: নাছিম

আজকের পটুয়াখালী

প্রকাশিত: ২৩ জানুয়ারি ২০২৩  

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র অনন্য নেতৃত্বে বাংলাদেশ বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে। বাংলাদেশ আজ বিশ্ব দরবারে সম্মানিত।

রোববার অস্ট্রেলিয়ার এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। কৃষিবিদ ইন্সিটটিউশন অস্ট্রেলিয়ার পক্ষ থেকে আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম ও তার সহধর্মিণী ডা. সুলতানা শামিমা চৌধুরী রিতাকে এ সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।

বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, আজকে যারা দেশে দুর্নীতির কথা বলে তারা ৫ বার দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলো। এরাই বিশ্ব দরবারে আমাদের কলঙ্কিত ও অসম্মানিত করেছিলো। শেখ হাসিনার সরকার উন্নয়নের সরকার। এ সরকার উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে বিশ্বে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে। ২৫ বছর আগের বাংলাদেশের সঙ্গে বর্তমান বাংলাদেশের তুলনা করার কোনো সুযোগ নেই।

তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সব সময় দেশের মানুষের কথা ভাবতেন। তিনি ৭ কোটি বাঙালির মুক্তির জন্য মহান মুক্তিযুদ্ধের ডাক দিয়েছিলেন। তিনি দেশের শিক্ষা ব্যবস্থা উন্নত করার জন্য যতদিন বেঁচে ছিলেন কাজ করেছেন।

কৃষিবিদ ইন্সিটটিউশন অস্ট্রেলিয়া শাখার সভাপতি কৃষিবিদ ড. আব্দুস সাদেকের স্বাগত ভাষনের মধ্যে দিয়ে সম্বর্ধনা অনুষ্ঠান শুরু হয়। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন কৃষিবিদ ইন্সিটটিউশন অস্ট্রেলিয়ার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোহম্মদ হোসেন বিপু।

অনুষ্ঠানের শুরুতে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট নিহত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, তার পরিবার, জাতীয় চারনেতাসহ মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে নিহত সব শহিদদের এবং প্রয়াত কৃষিবিদদের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনায় এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন- প্রফেসর এমিরিটাস ড. রফিকুল ইসলাম, ড. সিরাজুল হক, প্রকৌশলী আব্দুল মতিন, বিশিষ্ট সমাজ সেবক গামা আব্দুল কাদের, কেআইবির লাইফ মেম্বার মনোয়ার হসেন, কেআইবি অস্ট্রেলিয়া শাখার কার্যকরী সদস্য নির্মল পাল, ড. নিজামউদ্দিন আহমেদ ও আব্দুল জলিল প্রমুখ।