• বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৩০ ১৪৩১

  • || ০৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

আজকের পটুয়াখালী
ব্রেকিং:
তারেকসহ পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে কোরবানির পশু বেচাকেনা এবং ঘরমুখো মানুষের নিরাপত্তার নির্দেশ তিস্তা মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে চীনের কাছে ঋণ চেয়েছি গ্লোবাল ফান্ড, স্টপ টিবি পার্টনারশিপ শেখ হাসিনাকে বিশ্বনেতৃবৃন্দের জোটে চায় শিশুর যথাযথ বিকাশ নিশ্চিতে সকল খাতকে শিশুশ্রমমুক্ত করতে হবে শিশুশ্রম নিরসনে প্রত্যেককে আরো সচেতন হতে হবে : প্রধানমন্ত্রী ব্যবসায়িদের প্রতি নিয়ম নীতি মেনে কার্যক্রম পরিচালনার আহ্বান বিনামূল্যে সরকারি বাড়ি গৃহহীনদের আত্মমর্যাদা এনে দিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর জিসিএ লোকাল অ্যাডাপটেশন চ্যাম্পিয়নস অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ প্রধানমন্ত্রীকে বদলে যাওয়া জীবনের গল্প শোনালেন সুবিধাভাগীরা আশ্রয়ণের ঘর মানুষের জীবন বদলে দিয়েছে: প্রধানমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি তৈরি করে দেব : প্রধানমন্ত্রী নতুন সেনাপ্রধান ওয়াকার-উজ-জামান প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর পাচ্ছে সাড়ে ১৮ হাজার পরিবার শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস আজ শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন সোনিয়া গান্ধী মোদীকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শেখ হাসিনা-মোদি বৈঠকে দু’দেশের সম্পর্ক আগামীতে আরো দৃঢ় হবে বাংলাদেশ ভুটান থেকে জলবিদ্যুৎ আমদানি করতে আগ্রহী : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা-নরেন্দ্র মোদী সংক্ষিপ্ত শুভেচ্ছা বিনিময়

প্রতিপক্ষ‌কে ফাঁসা‌তে মেয়েকে হত‌্যার অভিযোগ মায়ের বিরুদ্ধে

আজকের পটুয়াখালী

প্রকাশিত: ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  

প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে মরিয়ম না‌মের নি‌জের ৮ বছ‌রের শিশুসন্তান‌কে হত্যার অভিযোগ উঠেছে মা রিনা বেগম ও চাচা সেন্টু মৃধার বিরু‌দ্ধে। ঘটনার ৪ দিন পর হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে পটুয়াখালী পুলিশ। হত্যার কথা স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন মা ও চাচা—এমনটাই জানিয়েছে পু‌লিশ।

বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) রাতে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন পটুয়াখালী পুলিশ সুপার মো. সাইদুল ইসলাম। এর আগে দুপুরে দশমিনা উপজেলার বেতাগী সানকিপুর ইউনিয়নের রামবল্লভ গ্রামে থেকে ওই শিশুর মা ও চাচাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে পুলিশ সুপার জানান, মরিয়ম হত্যার ঘটনা জানার সঙ্গে সঙ্গেই পুলিশ বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে তদন্তে নামে। হত্যার আগে মা রিনা বেগম ও চাচা সেন্টু মৃধা জমিসংক্রান্ত বিরোধে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে মরিয়মকে হত্যার পরিকল্পনা করেন। পরিকল্পনার অংশ হিসেবে শনিবার সন্ধ্যায় মা রিনা বেগম মেয়ে মরিয়মকে পাশের বাড়িতে বেড়াতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে নতুন পোশাক পরিয়ে চুল বেঁধে সাজিয়ে-গুছিয়ে বাড়ির পাশের পরিত্যক্ত ভিটায় নিয়ে যায়। সেখানে গিয়ে ওড়না দিয়ে মরিয়মের মুখ বেঁধে রাখে মা আর চাচা সেন্টু মৃধা মোটা শক্ত লাঠি দিয়ে মাথায় আঘাত করে মৃত্যু নি‌শ্চিত ক‌রে চ‌লে যায়।

পু‌লিশ সুপার আরও জানান, মরিয়মকে হত্যার আলামত ঢাকতে মা রিনা বেগম রক্তাক্ত পোশাক নিয়ে পুকুরে নেমে সাঁতার জানা মরিয়মকে খুঁজতে থাকেন। মরিয়মের নিখোঁজ হওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যে বাড়ি বাড়ি না খুঁজে এলাকার মসজিদের মাইকে তার নিখোঁজ হওয়ার সংবাদ প্রচার করতে থাকেন। এ ছাড়া মরিয়মের মায়ের অসংলগ্ন আচরণ দেখে পুলিশের সন্দেহ হয়। মরিয়মকে হত্যার কাজে ব্যবহৃত লাঠি ও ওড়না উদ্ধার করেছে পুলিশ।

প্রসঙ্গত, শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) রামবল্লভ অগ্রণী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী মরিয়মকে বাড়িতে ফিরতে না দেখে পরিবারের লোকজন তাকে খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। রাত ৮টায় বাড়ির পাশের পরিত্যক্ত ভিটায় মেয়ের রক্তাক্ত দেহ পড়ে থাকতে দেখেন তার বাবা মকবুল মৃধা। এ সময় শিশুটির মাথা দিয়ে রক্ত ঝরছিল এবং গলায় ওড়না পেঁচানো ছিল। খবর পেয়ে পুলিশ রাত ১২টায় মরিয়মের লাশ উদ্ধার করে।

নিহত মরিয়মের বাবা মকবুল মৃধা বলেন, ‘পুলিশ বলেছে, মরিয়মের মা রিনা বেগম ও আমার ভাই সেন্টু মৃধা মিলে মরিয়মকে হত্যা করেছে। ঘটনা সত্যি না মিথ্যা বুঝতে পারছি না। তবে তারা যদি সত্যি অপরাধী হয় তাহলে তাদের যেন কঠোর বিচার হয়।’

জান‌তে চাই‌লে দশমিনা থানার ওসি মো. নুরুল ইসলাম মজুমদার জানান, মরিয়ম হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্ত রিনা বেগম ও সেন্টু মৃধাকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।